1. ruhul.lemon@gmail.com : admin :
  2. tanjid.fmphs@gmail.com : তানজিদ শুভ্র : তানজিদ শুভ্র
  3. contact.mdrakib@gmail.com : Rakib Howlader : Rakib Howlader
শনিবার, ২১ নভেম্বর ২০২০, ১০:৩৩ পূর্বাহ্ন

কে শোনে কার কথা!

  • প্রকাশ: রবিবার, ৫ এপ্রিল, ২০২০
  • ১৫০ বার পঠিত

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সরকারের বিভিন্ন দিক-নির্দেশনায় বরগুনার তালতলী উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসনসহ বিভিন্ন বেসরকারি ও সামাজিক সংগঠন ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা ও জরিমানা চালিয়েও এ এলাকার মানুষকে সামাজিক দূরত্ব মানানো যাচ্ছে না।

সরেজমিনে বিভিন্ন স্থানে ঘুরে দেখা গেছে, উপজেলা সদরের বিভিন্ন স্পটে চায়ের দোকান, শহরের চৌরাস্তা, কাঁচাবাজার, মাছবাজার, মাছের আড়তসহ অন্যান্য দোকানগুলোতে অনেক লোকের সমাগম হয়। যা চোখে পড়ার মতো। করোনাভাইরাস সম্পর্কে মানুষের মাঝে সচেতনতা বাড়াতে উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনসহ বিভিন্ন বেসরকারি ও সামাজিক সংগঠন ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে লোকজনকে সামাজিকভাবে তিন ফুট দূরত্ব বজায় রেখে চলাচলের নির্দেশনা দেওয়া হয়। কিন্তু তা মানছেন না এ উপজেলার অধিকাংশ মানুষ।

এ ছাড়া করোনাভাইরাস সচেতেনতায় বিভিন্ন ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধি ও সামাজিক সংগঠনগুলো সকল জনসাধারণকে সর্তক হওয়ার জন্য হ্যান্ডবিল বিতরণ ও ব্যাপক মাইকিং করে প্রয়োজন ছাড়া জনসাধারণকে ঘর থেকে বের হতে নিষেধ করার পড়েও তারা ঘর থেকে বের হচ্ছেন। আর যারা বের হচ্ছেন তাদের সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাফেরা করতে বলা হয়। কে শোনে কার কথা। সামাজিক দূরত্ব নিয়ে চলাফেরা তো দূরের কথা অনেকেই হাত ধোয়া, মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করেন না। অনেককে বিভিন্ন দোকানের সামনে গিয়ে একত্রে জড়ো হয়ে গা ঘেষে বসে আড্ডা দিতেও দেখা যায়।

অপরদিকে অনেক ব্যবসায়ীরা তাদের দোকানের অর্ধেক শাটার বা দরজা খুলে আবার কেউ কেউ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের শাটার বন্ধ করে সামনে চেয়ার নিয়ে বসে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। এখানেও মানা হচ্ছে না সামাজিক দূরত্ব। করোনাভাইরাসের ঝুঁকি কমাতে সরকারের পক্ষ থেকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাচল করার নির্দেশনা থাকলে ও বিভিন্ন হাটবাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালত জরিমানা করেও মানাতে পারছেন না সামাজিক দূরত্ব।

স্থানীয়রা বলেন, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে যে পদক্ষেপগুলো এর মধ্যে নিয়েছেন তা প্রশংসনীয়। আমরা কেউই সামাজিক দূরত্ব মেনে চলছি না। যে কারণে ঝুঁকিতে রয়েছে গোটা উপজেলাবাসী।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো. সেলিম মিয়া বলেন, সামাজিক দূরত্ব না মানায় উপজেলার লাউপাড়া বাজারে চারজনকে ও নিউপাড়া বাজারে একজনকে জরিমানা করেছি। সামাজিক নিরাপত্তা মানাতে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

সূত্রঃ কালের কন্ঠ

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো বার্তা..
নিঃস্বত্ত্ব © সংগৃহিত তথ্যগুলোর স্বত্ব সম্পূর্ণভাবে সোর্স সাইটের। আমাদের নিজস্ব কোন স্বত্ব নেই।

কারিগরি সহায়তায় WhatHappen